শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
কাজিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য পরীক্ষার বিলের টাকার সিংহভাগ নয়ছয় হওয়ার অভিযোগ ফ্রান্সে মহানবীর ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শন প্রতিবাদে ফুলবাড়ীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ নাগরপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টা:গ্রাম্য সালিশে বিচার না পেয়ে থানায় মামলা মধুপুরে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ)মাহফিল অনুষ্ঠিত আসছে জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী লুপর্ণা মূৎসূর্দ্দী লোপার নতুন মিউজিক ভিডিও চৌহালীতে জেলেদের মাঝে চাল বিতরণ বাবার অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে ভোট চাইলেন নাসিমপুত্র জয় কারা হচ্ছেন কালিগঞ্জ বিএনপির কান্ডারী বেলকুচিতে যমুনায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ মাছ ধরার অপরাধে ১৫ জেলের কারাদন্ড সিংড়া মডেল প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপ নির্ণয়
দুই স্ত্রী থাকার পরেও প্রবাসীর স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিলেন শ্রমিক লীগ নেতা!

দুই স্ত্রী থাকার পরেও প্রবাসীর স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিলেন শ্রমিক লীগ নেতা!

ছবি সংগৃহীত

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে লেবার সরদার আলাল নিজ ঘরে দুই স্ত্রী রেখে প্রবাসীর স্ত্রী এক সন্তানের মাকে নিয়ে উধাও হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। প্রবাসীর স্ত্রী মনি আক্তার (২৫) তার পূর্বের স্বামীর সম্পত্তি নিতে গেলে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে সরদার আলাল।

এ ঘটনায় পূর্বের স্বামী প্রবাসীর বড় ভাই মো. লাক মিয়া (৫০) গত মঙ্গলবার দুর্গাপুর থানায় একটি অভিযোগটি দাখিল করে।

অভিযোগের বিবরণে জানা যায়, জেলার কলমাকান্দা থানার উত্তর নাউরীপাড়া গ্রামের মৃত হাজী আ. হেকিমের ছেলে সৌদী প্রবাসী মো. কাউছার আহাম্মদ কাজল মনি আক্তার (২৫)কে বিয়ে করে। তাদের সংসারে ৫ বছরের এক ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর সৌদী প্রবাসী মো. কাউছার আহাম্মদ কাজল একবার বাংলাদেশে এসেছিলেন।

সেই সুযোগে অর্থাৎ দুর্গাপুর চরমোক্তারপাড়া বসবাস করা অবস্থায় প্রতিবেশী নারীলোভী লেবার সরদার আলাল সৌদী প্রবাসী মো. কাউছার আহাম্মদ কাজলের স্ত্রী মোছা. মনি আক্তারের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং এক পর্যায়ে ওই প্রবাসী মো. কাউছার আহাম্মদ কাজলের সঙ্গে স্বামী-স্ত্রী সম্পর্ক ছিন্ন করার পরিবেশ ঘটিয়ে অবৈধ উপায়ে রাতারাতি কোটিপতি হয়ে যাওয়া লেবার সরদার আলাল। পাশাপশি ওই প্রবাসীর স্ত্রী মনি আক্তার (২৫)কে চতুর্থতম বিয়ে করে লেবার সরদার আলাল।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আলাল সরদার বিবাহিত আরো তিনটি স্ত্রীর মধ্যে একটিকে ডিভোর্স দিয়েছেন তিনি। আর তার দুই স্ত্রীর তিন সন্তান রয়েছে। স্ত্রীদের জন্যে আলাদা বাসা তৈরি করে দিয়েছেন। পৌর সদরের প্রবেশ করে সোমেম্বরী নদীতে বালুর ঘাটে শ্রমিকদের সরদারী করেন দীর্ঘদিন। কিছুদিন পরেই স্থানীয় কতিপয় নেতাদের মদদপুষ্টে পৌর শ্রমিক লীগ সভাপতির পদ ভাগিয়ে নেন।

পৌর এলাকায় আলাল সর্দারের বিরুদ্ধে সরকারি খাস জমি দখল, নামে-বেনামে ৫টি বাড়ি নির্মাণ, বেশকটি ট্রাকের মালিক, জমি দখলকে কেন্দ্র করে অসহায় কামালকে মারধর, শুটকি ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে মারধর, পৌর সদরের বালু মহালে শ্রমিক মারধর, গুটিকয়েক রাজনৈতিক নেতার প্রশ্রয়ে নানা ধরনের অনিয়ম বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

পৌর শহরের শহর রক্ষা বাঁধ এর ব্লক তুলে স্থাপনা নির্মাণসহ নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পেটানোর অভিযোগ রয়েছে। তার নামে মার্ডার মামলা রয়েছে। হঠাৎ বড় লোকের ঘ্রাণে মানুষকে মানুষ মনে করছেন না তিনি। টু থেকে টা কষলেই হুমকি দিয়ে বেড়ান যে কাউকেই! তার এ অনিয়মের খুঁটির জোড় কোথায় জানতে চায় অসংখ্য ভুক্তভোগী। স্থানীয় প্রশাসনসহ সরকার সংশ্লিষ্টদের নজরদারি কামনা করছেন সচেতন মহল।

অভিযোগ নিয়ে আলাল সর্দার মুঠোফোনে বলেন, আমাকে জড়িয়ে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সত্যি নয়। নানা অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকার ওপর প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি কোনো অনিয়মের সঙ্গে জড়িত নই। যার টাকা আছে, তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ উঠতেই পারে।

এ বিষয়ে দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান প্রতিবেদককে জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি সত্যিই দুঃখজনক। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

© All rights reserved
Design & Developed BY RSK HOST