শুক্রবার, ০৭ অগাস্ট ২০২০, ০৫:০৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
নাগরপুরে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা মনপুরায় মানা হচ্ছে না সরকারী নির্দেশনা মধুপুর পৌর শহরের চরপাড়া যাতায়াতের রাস্তার বেহাল দশা বেলকুচিতে বাল্যবিবাহ দেয়ার চেষ্টা, বন্ধ করলেন ইউএনও কেশবপুর ২ দল মাদক কারবারির গোলাগুলিতে নিহত ১ রাতের আঁধারে রূপসা ব্লাড কাফেলার কুরবানীর গোশত বিতরণ মধুপুরে ৩৮ তম বিসিএস ক্যাডারদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কালিগঞ্জবাসী কে ঈদুল আযহা’র শুভেচ্ছা জানিয়ে জেলা পরিষদ সদস্য নুরুজ্জামান জামু’র বিবৃতি রূপসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উপজেলাবাসীকে জানিয়েছেন ঈদের শুভেচ্ছা বন্যা ও নদী ভাঙনে যমুনা চরাঞ্চলে নেই ঈদের আনন্দ
ব্যস্ততা বেড়েছে নৌকা কারিগরদের

ব্যস্ততা বেড়েছে নৌকা কারিগরদের

বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় আষাঢ় মাস থেকে আশ্বিন মাস পর্যন্ত নৌকা বিক্রির ধুম পড়ে যায়। সদর উপজেলার কড়াপুর এবং নভগ্রাম রোড সড়কের পাশের বিভিন্ন খালে নৌকা বিক্রি হয়।

স্বরুপকাঠীর আটঘর, কুড়িয়ানা, ইন্দেরহাট ও মিয়ার হাটে নতুন তৈরি ছোট নৌকা বিক্রির হাট বসতে শুরু করেছে। বিভিন্ন ধরনের নৌকা বেচাকেনা এরই মধ্যে জমজমাট হয়ে উঠে। সর্বত্রই নৌকার কদর বেড়ে যাওয়ায় নৌকা তৈরির কারিগরদের এখন ব্যস্ততার কোনো শেষ নেই।

বরিশালের খাল-বিল, নদী-নালা বেষ্টিত এলাকা উজিরপুর, বানারীপাড়া ও আগৈলঝাড়ারর সাতলার বিভিন্ন ইউপির চলাচল ও ব্যবসা বাণিজ্যের একমাত্র বাহক নৌকা।

কৃষকদের কাছ থেকে ক্রয় করা সবজি, ধান কাটা, বাগান থেকে পেঁয়ারাসহ, বিভিন্ন জাতের ফসল সংগ্রহ এবং বাজারজাত করার কাজে এই বিল অঞ্চলে নৌকার বিকল্প নেই। আর এ বাড়তি চাহিদার যোগান দিতে নৌকা তৈরির কারিগররা দিন রাত শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন।

বর্তমানে কাঠসহ নৌকা তৈরির উপকরণের অতিরিক্ত দাম বেড়ে যাওয়ার কারণে নৌকা তৈরিতে খরচও বেড়েছে। তবে সে তুলনায় হাট-বাজারগুলোতে ক্রেতাদের কাছে নৌকার দাম বাড়েনি বলে জানান কারিগররা।

নিজস্ব পুঁজি না থাকার কারণে দাদন ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অগ্রীম টাকা নিয়ে উপকরণ কিনতে হয়। যে কারণে তারা তেমন দাম পায় না। দক্ষিণাঞ্চলের বৃহত্তম নৌকারহাট স্বরুপকাঠীর আটঘরসহ আশপাশের বিভিন্ন নৌকা বিক্রির হাটগুলো এখন ক্রেতা বিক্রেতা সমাগমে সরগরম হয়ে উঠেছে।

বর্ষা মৌসুমের শুরুতেই প্রতি বছরের ন্যায় বরিশালের উজিরপুর, আগৈলঝাড়ার, পিরোজপুরের স্বরুপকাঠী ও ঝালকাঠীসহ দক্ষিণাঞ্চলের নদী-নালা খালবিল বেষ্টিত এলাকায় নৌকার কদর বেড়ে গেছে। এতে নৌকা নির্ভর এলাকাগুলোতে প্রচুর নৌকার চাহিদা বেড়েছে।

আর এ বাড়তি চাহিদার যোগান দিতে জেলার নৌকা তৈরির কারিগররা দিন রাত শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু কাঠ, লোহাসহ নৌকা তৈরির উপকরণের দাম বাড়লেও সে তুলনায় বাড়েনি নৌকার দাম।

তাছাড়া কারিগরদের নিজস্ব পূুঁজি না থাকায় দাদন ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অগ্রিম টাকা নিয়ে উপকরণ কিনতে হয়। যে কারণে তারা কষ্টের তেমন দাম পায় না। তবুও তারা প্রতি হাটে তৈরি করা নৌকা নিয়ে হজির হয়। দক্ষিণাঞ্চলের বৃহত্তম নৌকারহাট আটঘর কুড়িয়ানাসহ আসপাশের বিভিন্ন নৌকা বিক্রির হাটগুলো এখন ক্রেতা বিক্রেতা সমাগমে সরগরম হয়ে উঠেছে।

প্রায় দু’শ বছরের পুরানো বরিশাল ও ঝালকাঠির সীমান্তবর্তী আটঘর নৌকা কেনা বেচার হাটে বিক্রির জন্য জেলা বিভিন্ন স্থান থেকে কারিগর এবং মৌসুমী ব্যবসায়ীরা নৌকা নিয়ে আসে ইঞ্জিনচালিত ট্রলার ও গাড়িতে করে। এখান থেকে এসব নৌকা যাচ্ছে বৃহত্তর বরিশাল এবং ফরিদপুরের প্রত্যন্ত অঞ্চলে। প্রতি মৌসুমে এ হাটে দেড়-দুই কোটি টাকার নৌকা বিক্রি হয় বলে ব্যবসায়ীরা জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসী ডেস্কঃ পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে দেশবাসী এবং সারা বিশ্বের মুসলমানদের শুভেচ্ছা মাল্টা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম কমান্ড কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব রাজিব দাশ। পবিত্র ঈদুল আযহায় তিনি দেশবাসী ও মুসলিম উম্মাহর অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করেন। রাজিব দাশ বলেন, ঈদ সব শ্রেণি-পেশার মানুষের মধ্যে গড়ে তোলে সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি ও ঐক্যের বন্ধন। ঈদ সাম্য, মৈত্রী ও সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ করে সব মানুষকে। পবিত্র ঈদুল আযহায় সৌহার্দ্য-সম্প্রীতি আর ভ্রাতৃত্বের মহীমান্বিত আহ্বানে শান্তি-সুধায় ভরে উঠুক প্রতিটি মানুষের হৃদয়। তিনি আরো বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যেও পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত হতে যাচ্ছে। তাই নিজ ও নিজের পরিবার এবং বৃহৎ জনস্বার্থে সরকারি নির্দেশনা মেনে ঈদের নামাজে অংশ গ্রহণ করার আহ্বান জানাই। বাংলাদেশ যেভাবে সব সংকট উত্তরণের মধ্য দিয়ে এগিয়ে গেছে ঠিক একইভাবে করোনা সংকট জয় করে কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির অভিযাত্রায় নব-উদ্যোমে এগিয়ে যাক বাংলাদেশ। দেশের এই সংকটময় পরিস্থিতিতে ঝুকি এড়াতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

© All rights reserved
Design & Developed BY RSK HOST