শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
কাজিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য পরীক্ষার বিলের টাকার সিংহভাগ নয়ছয় হওয়ার অভিযোগ ফ্রান্সে মহানবীর ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শন প্রতিবাদে ফুলবাড়ীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ নাগরপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টা:গ্রাম্য সালিশে বিচার না পেয়ে থানায় মামলা মধুপুরে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ)মাহফিল অনুষ্ঠিত আসছে জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী লুপর্ণা মূৎসূর্দ্দী লোপার নতুন মিউজিক ভিডিও চৌহালীতে জেলেদের মাঝে চাল বিতরণ বাবার অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে ভোট চাইলেন নাসিমপুত্র জয় কারা হচ্ছেন কালিগঞ্জ বিএনপির কান্ডারী বেলকুচিতে যমুনায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ মাছ ধরার অপরাধে ১৫ জেলের কারাদন্ড সিংড়া মডেল প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপ নির্ণয়
চার বছরের শিশুকে হত্যা করে ডোবায় ফেলে দিলেন সৎমা

চার বছরের শিশুকে হত্যা করে ডোবায় ফেলে দিলেন সৎমা

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে শিশুমেয়েকে হত্যার অভিযোগে সৎমা আটক হয়েছেন। অভিযুক্ত সৎমা রিনা আক্তার শিশুমেয়েকে হত্যার পর পানিতে ডুবে মরার খবর প্রচার করে।

শুক্রবার রাতে উপজেলার ডোয়াইল ইউপির মাজালিয়া গ্রামের নিজবাড়ি থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। শনিবার দুপুরে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

জানা যায়, বুধবার রাত ৮টার দিকে মাজালিয়া (ভূঁইয়াপাড়া) গ্রামের আবুল কালামের চার বছরের মেয়ে কনা আক্তারকে ঘরের পাশে একটি ডোবায় পড়ে থাকতে দেখে বাড়ির লোকজন। শিশুকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পরে তার সৎমা রিনা আক্তার শিশুটি পানিতে পড়ে মারা গেছে বলে এলাকায় প্রচার করে। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় সৎমাকে ঘিরে সন্দেহ সৃষ্টি হয়। পরে শিশুটির বাবার মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতে সৎমাকে পুলিশ আটক করে থানায় নেয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসে।

শিশুর বাবা আবুল কালাম জানান, দুই বছর আগে তার প্রথম স্ত্রী সালমা
বেগম শারীরিক অসুস্থতায় মারা যান। তারপর তিনি মাজালিয়া গ্রামের ঈমান আলীর মেয়ে রিনা আক্তারকে বিয়ে করেন। তার গর্ভে কোনো সন্তান না হওয়ায় সে প্রথম স্ত্রীর সন্তানকে সহ্য করতে পারতো না। এ আক্রোশে সে তার মেয়েকে গলাটিপে হত্যা করে লাশ পানিতে ফেলে দেয়।

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার ওসি আবু মো. ফজলুল করীম জানান, ওই শিশু মেয়ে পানিতে পড়ে মারা যায়নি, তাকে হত্যা করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে সৎমা রিনা আক্তার পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। ঘটনার দিন সন্ধ্যায় সৎমা শিশুটিকে ডেকে নিয়ে গলাটিপে হত্যার করে। তারপর তার লাশ পাশের ডোবার পানিতে ফেলে দেয়। এ ব্যাপারে শিশুটির বাবা আবুল কালাম বাদী হয়ে তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে সরিষাবাড়ী থানায় হত্যা মামলা করেছেন। আটককে শনিবার দুপুরে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

© All rights reserved
Design & Developed BY RSK HOST