সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৬:৪৪ অপরাহ্ন

গতকাল ছিলো ফেনীর গায়ে হলুদ আজ লকডাউন

ফজলুল করিম হৃদয়,ফেনী প্রতিনিধি:

 

আজ থেকে শুরু হয়ছে সাত দিনের লকডাউন। লকডাউন কে সামনে রেখে গতকাল ফেনীর বাজারে ছিলো ক্রেতাদের চাপ । উপচে পড়া ভীড় মুদি দোকানগুলোতে। এই সুযোগে দোকানিরাও বাড়িয়ে দিয়েছে নিত্য পন্যের দাম। শহরের বড় বাজার, পৌর হর্কাস মার্কেট, মহিপাল কঁাচা বাজার, সিও অফিসবাজার ঘুরে দেখা যায় এমন চিত্র। জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্যাবসায়ী ও সাধারন মানুষ দোকন এবং সংসারের জন্য প্রয়োজনীয় নিত্যপণ্য চাল, ডাল, তেল, নুন, পেঁয়াজ, আলু ইত্যাদি কিনছেন। বাড়তি মানুষের চাপে শহরে বিভিন্ন সড়কে যানজট ছিলো গভীররাত পর্যন্ত।
লকডাউন মানেই যেন টান টান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে বাজার করার মহা উৎসব। ঈদের বাজারের মতই সদাই কিনছেন মানুষ। অনেকে আবার ১০-১৫ কেজিতে সীমাবদ্ধ নেই। কিনছেন আলু, চাল, পেয়াজ, আটার বস্তা। উপজেলার হাটবাজারের ব্যাবসায়ীরাও মজুদ করার জন্য সব কিছু নিয়ে গেছেন বেশি বেশি করে।
এক সপ্তাহে লকডাউনের খবরে ফেনীর ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া, মিশ্রপ্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছিলো। মানুষ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে বাজারে ভিড় করেছেন। কেউ কেউ একসঙ্গে বাড়তি পরিমাণ পণ্য কিনে ঘরে ফিরেছেন।
গতকাল রবিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত জেলার অন্যতম বড় বাজারে ক্রেতাদের ভিড় দেখে মনে হতে পারে করোনা নয় ফেনীর বিয়ে লেগেছে- যেন এক গায়ে হলুদের আমেজ এসেছে। সেই বিয়েকে উদযাপনের জন্য চলছে ব্যাপক কেনাকাটা। বেশির ভাগ মানুষ সংসারের জন্য প্রয়োজনীয় পণ্য ডাল, তেল, পেঁয়াজ ও আলু কিনছিলেন। তবে মাছ, গোশত, সবজির বাজারে ভীড় ছিল অন্যদিনেইর মতই।
এদিকে জেলা পর্যায়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ও প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (৪ এপ্রিল) সকালে নিজ সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মো: ওয়াহিদুজজামান। সভায় জেলায় করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি ও সংক্রমণের বিস্তার রোধে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
করোনা ভাইরাস উপসর্গ দেখা দিলে কোয়ারেন্টাইনে থাকা এবং বিদেশ ফেরতদের বাধ্যতামূলক ১৪ দিন নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখার বিষয়ে আলোচনা করা হয়। এছাড়া মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাস্তি প্রদানের বিষয়ে সভায় উপস্থিত সকলের একমত পোষণ করেন। এটি বাস্তবায়নে জেলার সকল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভূমি কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেন জেলা প্রশাসক।

সংবাদটি শেয়ার করুন

© All rights reserved
error: Alert: Content is protected by Frilix Group