শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
চলতি মাসেই চালু হবে সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেন-রেলমন্ত্রী সিরাজগঞ্জে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় জেলা পর্যায়ের সেমিনার অনুষ্ঠিত বিশ্বনাথে ‘স্বপ্ন’র যাত্রা শুরু সলঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক পথচারীর মৃত্যু আওয়ামীলীগ বাংলাদেশের রাজনীতিতে সবসময়ই অত্যন্ত শক্তিশালী ও গুরুত্বপূর্ণ দল -কৃষিমন্ত্রী বিশ্বনাথে সাজাপ্রাপ্ত আসামি সুহেল গ্রেফতার বেলকুচিতে সরকারি জমি দখল করে অবৈধভাবে দোকান নির্মাণ কাজিপুরে বন্যায় রোপা আমন ধান তলিয়ে জাওয়ায় ১৩ হাজার ৩৭১ কৃষের কপালে ভাজ বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত – ১ উল্লাপাড়ায় ট্রাকচাপায় কলেজ ছাত্রসহ নিহত ২

কাজিপুরে একসাথে তিন কন্যার জন্ম দিলেন মা লিমন

হেলাল কাজিপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে জুলেখা খাতুন নামের এক মা এক সঙ্গে তিন কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। তিনি উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নের রৌহাবাড়ি গোপালপুর গ্রামের জহুরুল ইসলামের স্ত্রী।

গত বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বগুড়ার ধুনটেরএকটি ডায়াগনস্টিকে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে তিন শিশুর জন্ম দেন ওই মা। শিশু তিনটির নাম রাখা হয়েছে আয়েশা, ফাতেমা ও মরিয়ম। বর্তমানে শিশু তিনটি সুস্থ থাকলেও মা অসুস্থই রয়েছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ২ সেপ্টেম্বর বিকেলে প্রসব ব্যথা অনুভূত হলে স্বজনরা জুলেখা খাতুনকে পার্শবর্তী বগুড়ার ধুনট উপজেলার একটি ডায়াগনস্টিকে নিয়ে যান। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে সিজারিয়ান অপারেশন করান। এতে জন্ম নেয় তিন কন্যা শিশু। এরপর গত মঙ্গলবার ওই মা আরও অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বগুড়ার শজিমেক এ চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়।

সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা নিরীক্ষা করে জানান তার হার্টের সমস্যা হয়েছে। তিন নবজাতক নিয়ে ওই দম্পতি বর্তমানে উপজেলার পরানপুরে নবজাতকদের নানার বাড়িতে অবস্থান করছেন। নবহাজতকদের বাবা জহুরুল ইসলাম বলেন, আমরা গরীব মানুষ। ভ্যান চালিয়ে মা-বাবা আর স্ত্রীকে নিয়ে সংসার চালাতাম। এরই মধ্যে এক সাথে তিনটি কন্যা সন্তানের জন্ম হলো। পরিবারের খাবার যোগানই কঠিন। এর মধ্যে আবার স্ত্রীর চিকিৎসা খরচ, নিজেদের খাওয়া-দাওয়ার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সন্তানদের বাড়তি খাবার। সব মিলিয়ে খুবই দুশ্চিন্তায় আছি। নবজাতকের মা জুলখা খাতুন বলেন, আমি এখনও সুস্থ হই নাই। বুকের দুধে তিন সন্তানের খাবার সংকুলান হচ্ছে না।ডাক্তারের পরামর্শ মতে বাড়তি খাবার দেয়া হচ্ছে।

সরকারী ভাবে কোন সহযোগিতা পেলে একটু স্বস্তি পেতাম। কাজীপুর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা চিত্রা রানী সাহা জানান, এক সঙ্গে তিন সন্তান। এটি সৃষ্টি কর্তার দান। আমাদের কিছুই করার নেই। সম্প্রতি ভিজিডি’র কাজ শেষ হয়েছে। পরবর্তীতে তা করে দেয়া যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে অফিসে যোগাযোগ করতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

© All rights reserved
error: Alert: Content is protected by Frilix Group