শনিবার, ১২ Jun ২০২১, ০৯:০৬ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
কালিগঞ্জে হারুন এগ্রিকালচার ফার্ম পুকুরে বিষ প্রয়োগ, ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি সলঙ্গার রামকৃষ্ণপুরে ডিজিটাল কায়দায় বয়স্ক ভাতার টাকা চুরি কাজিপুরে মৎস্য কর্মকর্তার অভিযানে ২৫ টি চায়না জাল জব্দ আওয়ামী লীগ নেতাকে মারপিট,মনিগ্রাম বাজারে আতংক এখন আফাজ কামারখন্দে কৃষিজমিতে নদীখননের বালি রাখার প্রক্রিয়ার প্রতিবাদে কৃষকদের বিক্ষোভ সিরাজগঞ্জে বিদ্যুৎ গ্রাহকদের নানা অভিযোগের প্রেক্ষিতে গণশুনানী কালিগঞ্জ থানায় কুখ্যাত চোর জালালসহ ওয়ারেন্টভুক্ত ০৪ আসামী গ্রেফতার সিরাজগঞ্জে জেলা পর্যায়ে করোনা প্রতিরোধ বিষয়ক কার্যক্রম সুসমন্বয়ের লক্ষ্যে-মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত নাগরপুরে দূর্যোগ বিষয়ক স্থায়ী আদেশাবলী অবহিতকরণ কর্মশালা কালিগঞ্জের হাড়দ্দহা গ্রামে জনকল্যাণার্থে নলকূপ স্থাপন করলেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী শেখ নাসিরউদ্দীন

যৌতুক না দেয়ায় স্ত্রীর পরনের শাড়িতে স্বামীর আগুন

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় যৌতুকের দাবিতে মোসাম্মাৎ রহিমা বেগম নামে এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টার মামলায় স্বামী ইমাম হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৩ জুন) দুপুরে গ্রেফতার ইমাম হোসেনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার রাতে বরিশাল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার ইমাম উপজেলার ঘোষের টিকিকাটা গ্রামের শামসুল আলমের ছেলে।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মঠবাড়িয়া থানার ওসি আ.জ.মো. মাসুদুজ্জামান।

ওসি জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই গৃহবধুর ভাই মো. হাসান শেখ বাদী হয়ে ভগ্নিপতি (গৃহবধুর স্বামী) ইমাম হোসেনকে প্রধান করে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ছয় বছর আগে জেলার নাজিরপুর উপজেলার মালিখালী ইউপির দক্ষিণ ঝনঝনিয়া গ্রামের আলমগীর হেসেনের মেয়ে রহিমা বেগমের সঙ্গে জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার টিকিকাটা ইউপির ঘোষের টিকিকাটা গ্রামের শামসুল আলমের ছেলে ইমাম হোসেনের বিয়ে হয়। বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই স্বামী ইমাম হোসেন তাকে ২ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য চাপ দিয়ে আসছে। ওই টাকা না দেয়ায় সামান্য অজুহাত দেখিয়ে নির্যাতন করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আবারো যৌতুকের টাকার জন্য চাপ দেয়।

এ সময় সে টাকা আনার অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে মারধর করা হয়। পরে তাকে হত্যার জন্য পরনে থাকা শাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময়ে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে ওই রাতেই তাকে বরিশাল শেবাচিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সহকারী সার্জন রাজু চন্দ্র সরকার জানান, তার শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে গেছে তাই তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

© All rights reserved
error: Alert: Content is protected by Frilix Group